কল সেন্টার : ১৬৪৯৬ EN

বর্তমানে JICA, GoB ও কোম্পানির যৌথ অর্থায়নে “Installation of Pre-paid Gas Meters for TGTDCL” শীর্ষক
প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। এ প্রকল্পের আওতায় ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় (বর্তমান ও নতুন উপশহর এলাকা) ২ লক্ষ আবাসিক
গ্রাহকের আঙ্গিনায় প্রি-পেইড মিটার স্থাপন করা হবে। বর্তমান এলাকাসমূহের মধ্যে বাড্ডা, গুলশান, বনানী, বারিধারা, বসুন্ধরা,
তেজগাঁও শি/এ, ক্যান্টনমেন্ট, মিরপুর, আজমপুর, কাফরুল, খিলক্ষেত, উত্তরখান ও উত্তরা এলাকায় ১ লক্ষ ৭০ হাজার আবাসিক
গ্রাহকের আঙ্গিনায় প্রি-পেইড মিটার স্থাপন করা হবে। অবশিষ্ট ৩০ হাজার প্রি-পেইড মিটার নতুন উপশহর এলাকা উত্তরা তৃতীয়
প্রকল্প, পূর্বাচল প্রকল্প ও ঝিলমিল প্রকল্প এলাকার আবাসিক গ্রাহকের আঙ্গিনায় স্থাপন করা হবে। প্রকল্পটি ডিসেম্বর ২০১৮-এর
মধ্যে সম্পনড়ব হবে বলে আশা করা যাচ্ছে। প্রকল্পের মোট ব্যয় ৭১২.০৯৯ কোটি টাকা, যার মধ্যে জাইকা ৪৫৩.১০৬ কোটি, জিওবি ২৩৬.৭৪৫১ কোটি ও নিজস্ব অর্থায়ন ২২.২৪৭৯ কোটি টাকা। প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বৈদেশিক ইঞ্জিনিয়ারিং পরামর্শক নিয়োগের জন্য ০৭/০৫/২০১৫ তারিখে তিতাস গ্যাস ও বৈদেশিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান Pegasus International (UK) Ltd-এর মধ্যে খসড়া চুক্তি সম্পাদিত হয়। খসড়া চুক্তিটি জাইকা ও তিতাস বোর্ডের অনুমোদনের পর আইন মন্ত্রণালয় কর্তৃক ভেটিং পূর্বক গত ০৭/১০/২০১৫ তারিখে চূড়ান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চূড়ান্ত চুক্তিটি JICA কর্তৃক অনুমোদনের পর গত ০৯/১০/২০১৫ তারিখে বৈদেশিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান কাজ শুরু করে। প্রকল্পের মাঠ পর্যায়ের কাজ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ইতোমধ্যে বৈদেশিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান কর্তৃক EPC ঠিকাদার নিয়োগের জন্য খসড়া দরপত্র প্রস্তুত করে জাইকা ও তিতাস বোর্ডের অনুমোদনের পর দরপত্র আহবান করা হয়। PEC কর্তৃক প্রাপ্ত দরপত্রের কারিগরি মূল্যায়ন সম্পনড়ব হয়েছে। বোর্ডের অনুমোদন সাপেক্ষে আর্থিক প্রস্তাব মূল্যায়ন করতঃ ঠিকাদার নিয়োগ চূড়ান্ত করা হবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে আবাসিক গ্রাহকদের অগ্রিম বিল আদায়, তদারকি সংμান্ত ব্যয় হ্রাস, কোম্পানির ব্যবস্থাপনা দক্ষতা উনড়বয়ন এবং গ্যাস ব্যবহারে সচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যমে গ্যাসের অপচয় রোধ তথা প্রাকৃতিক গ্যাসের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করা সম্ভব হবে। জ্বালানি ব্যবহারে দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে পরিবেশের উপরও ইতিবাচক প্রভাব পড়বে।

Top